Home Home Page Rank NTV ONLINE ETV ONLINE BANGLA  VISION ONLINE CHANEL I ONLINE EKATTOR TV ONLINE
২১-১১-২০১৪ শুক্রবার

 দৈনিক সিলেট ডটকম সিলেট বিভাগের সর্বাধিক জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল-আমাদের সাথে থাকুন, নিজেকে আপডেট রাখুন...   

 
 
এই জনপদ
 
 
 
 
 

নিউজডেস্ক:
বিশিষ্ট ভাষাসৈনিক ও শিক্ষাবিদ অধ্যক্ষ  মোহাম্মদ মাসউদ খানকে সিলেটবাসীর পক্ষ থেকে আগামী ৯ই জানুয়ারী এক গণ-সংবর্ধনা প্রদান করা হবে। নগরীর ঐতিহ্যবাহী শহীদ সুলেমান হলে শুক্রবার বিকাল ৩টায় অনুষ্টিতব্য এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠান সফলের লক্ষ্যে অধ্যক্ষ মাসউদ খান সংবর্ধনা পরিষদের পক্ষ থেকে বিস্তারিত পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। ইতোমধ্যে এ সংবর্ধনা সফলের জন্য ৩৫১ সদস্য বিশিষ্ট সংবর্ধনা পরিষদ ১১ সদস্য বিশিষ্ট উপদেষ্টা কমিটি ১৭ সদস্য বিশিষ্ট বাস্তবায়ন কমিটি এবং ১৫ সদস্য বিশিষ্ট তিনটি উপ-কমিটি করা হয়েছে। বুধবার বিকেলে কেন্দ্রিয় মুসলিম সাহিত্য সংসদের হলরুমে সংবর্ধনা পরিষদের আহ্বায়ক এডভোকেট সৈয়দ আশরাফ হোসেনের সভাপতিত্বে ও পরিষদের সদস্য সচিব লে.কর্ণেল প্রিন্সিপাল এম আতাউর রহমান পীর এর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় সংবর্ধনা বাস্তবায়নের জন্য উপ-কমিটিগুলোর মাধ্যমে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন  বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়ক হারুনুজ্জামান চৌধুরী, সদস্য সচিব ডা. নজরুল ইসলাম খান, যুগ্মসচিব বশির উদ্দিন, সেলিম আউয়াল, স্মারক উপ-কমিটির আহ্বায়ক কবি কালাম আজাদ, সদস্য সচিব শাহ নজরুল ইসলাম, অর্থ উপ-কমিটির আহ্বায়ক কাউন্সিলর রেজাউল হাসান কয়েস লোদী, সদস্য সচিব দিলওযার হোসাইন, প্রচার উপ-কমিটির আহবায়ক দেওয়ান তৌফিক মজিদ লায়েক ও সদস্য সচিব কে এম আবদুল্লাহ আল মামুন প্রমূখ।                                                                               

 
 
 
 
 
 
 

শিশুদের সুপ্ত প্রতিভা বিকাশে চিত্রাংকন প্রতিযোগিতার গুরুত্ব  অপরিসীম। সৃজনশীল প্রতিযোগিতার মাধ্যমে  শিশুদের  চিন্তা ধারাকে প্রসারিত করা যায়। শিশুরা যে বিষয়ে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করবে সে বিষয়ে তাদেরকে বিস্তারিত অন্তরে ধারন করতে হবে। শিশুদের অধিকারকে পূরণ করে আমাদের দেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। সার্বজনীন শিশু দিবস উপলক্ষ্যে সুবিধা বঞ্চিত ও শ্রমজীবি শিশুদের জন্য ইউকে-বাংলাদেশ এডুকেশন ট্রাস্ট (আকবেট)-এর উদ্যোগে ও রোটারী ক্লাব অব গার্ডেন সিটির সহযোগীতায় চিত্রাংকন প্রতিযোগীতায় বক্তারা একথা বলেন।
বৃহস্পতিবার নগরীর উপশহরস্থ আকবেট অফিস কক্ষে এ চিত্রাংকন প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হয়।
ইউকে-বাংলাদেশ এডুকেশন ট্রাস্ট (আকবেট)-এর নির্বাহী পরিচালক আসাদুজ্জামান সায়েমের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা ওয়ার্কশপ মালিক সমিতির সেক্রেটারী অজিত রায় ভজন, রোটারী ক্লাব অব গার্ডেন সিটির প্রেসিডেন্ট মোঃ সেলিম খান, প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট আহমদ রেজাউল করিম, আকবেট-এর কর্মকর্তা ফাহমিদা তানিয়া, আবুল কালাম আজাদ, এনামুল হক, রিয়াদ আহমদসহ স্কারের কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
আকবেটের শিশু শ্রম বিষয়ক প্রকল্পের আওতাধীন বিভিন্ন ঝুকিপূর্ন কাজে নিয়োজিত শিশুর ও সরকারের সমাজ কল্যাণ মন্ত্রনালয়ের অধিনে পরিচালিত “সার্ভিসেস ফর দ্যা চিলড্রেন এট রিস্ক” প্রকল্পের সুবিধা বঞ্চিত প্রায় অর্ধ শতাধিক শিশুরা উক্ত প্রতিযোগীতায় অংশ গ্রহণ করে। প্রতিযোগীতায় ১০ জনকে বিশেষ ভাবে পুর®কৃত করা হয়। প্রতিযোগীতায় প্রথম স্থান অধিকার করে রুমা আক্তার, ২য় মরিয়ম, ৩য় রীমা আক্তার, ৪র্থ মোছাঃ খাদিজা আক্তার, ৫ম জুয়েল ইসলাম, ৬ষ্ট কুহিনুর আক্তার, ৭ম মোছাঃ হনুফা আক্তার, ৮ম আয়েশা আক্তার ঝর্না, ৯ম, মোছাঃ শাহানূর ও রাসেল আহমদ ১০ম স্থান অধিকার করে।

 
 
 
 
 
 
 

বড়লেখা প্রতিনিধি:
মৌলভীবাজারের জুড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গাজী মোহাম্মদ সাখাওয়াত হোসেনকে প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়েছে। পুলিশের পোশাক (ইউনিফর্ম) না পরে সমাজকল্যাণমন্ত্রী সৈয়দ মহসিন আলীর প্রটোকলে যাওয়ার অভিযোগে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ তাঁর বিরুদ্ধে এ ব্যবস্থা নিয়েছে বলে জানা গেছে।
প্রত্যক্ষদর্শীদের সূত্রে জানা গেছে, জুড়ী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি এম এ মুমিত আসুক কয়েক মাস ধরে অসুস্থ। সমাজকল্যাণমন্ত্রী গত ১১ নভেম্বর রাতে উপজেলার বাছিরপুর এলাকায় মুমিতের বাংলো বাড়িতে তাঁকে দেখতে যান। এ সময় জুড়ী থানার ওসি গাজী মোহাম্মদ সাখাওয়াত হোসেনের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল সেখানে মন্ত্রীকে প্রটোকল দেয়। একপর্যায়ে খাবারের টেবিলে সাখাওয়াত হোসেনের পরনে টি-শার্ট ও জিনসের প্যান্ট দেখে মন্ত্রী তাঁকে ভর্ৎসনা করেন। পুলিশের একটি সূত্র জানায়, মন্ত্রী জুড়ী থেকে ফিরে মৌলভীবাজারের পুলিশ সুপারের (এসপি) সঙ্গে কথা বলে এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে সাখাওয়াত হোসেনকে চিঠি দিয়ে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে প্রত্যাহার করে নেওয়ার কথা জানানো হয়। চিঠি পাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে গাজী মোহাম্মদ সাখাওয়াত হোসেন বলেন, তাড়াহুড়ো করে যাওয়ায় ইউনিফর্ম পরতে পারিনি।
               

 
 
 
 
 
 
 

এ.জে লাভলু, বড়লেখা প্রতিনিধি:
মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার দক্ষিন শাহবাজপুর ইউনিয়নের দূর্গম পাহাড়ী এলাকা বোবারতল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কোমলমতি প্রায় পাঁচ শতাধিক শিক্ষার্থীদের পাঠদান চলছে আট জন শিক্ষকের মধ্যে প্রধান শিক্ষক সহ মাত্র দুই জন দিয়ে। তন্মধ্যে সহকারী শিক্ষিকা মুক্তিযোদ্ধার কোঠায় কুষ্টিয়া জেলা থেকে এক বছর আগে আসলেও তিনি ও মহাপরিচালক থেকে বদলী আদেশ নিয়ে নিজ জেলায় যাওয়ার জন্য বসে আছেন। এদিকে সম্প্রতি শিক্ষক সংকট দূরীকরনের জন্য উপজেলা শিক্ষা কমিটি তিনজনকে ডেপুটেশনে যোগদানের নির্দেশ দিলেও একজন যোগদান করলেও অপর দুইজন এখনও পর্যন্ত যোগদান করেননি। শিক্ষক সংকটের কারণে বোবারতল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ায় বিঘœ ঘটছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
গতকাল বৃহ¯পতিবার সরজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, বড়লেখা উপজেলা থেকে প্রায় ১৫ কিলোমিটার দূরে পাহাড়ী ও বন্ধুর পথ পাড়ি দিয়ে দূর্গম পাহাড়ী এলাকা বোবারতল এলাকার ষাটঘরী গ্রামে বোবারতল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অবস্থান। ভৌগিলকগত কারনে যোগাযোগ ব্যবস্থা সহজতর না হওয়ায় সেখানে কোন শিক্ষকই যেতে চান না । আর যারা নিয়োগ পান তারা ও দুই-তিন মাসের মধ্যে বদলি হয়ে যান। ফলে এ স্কুলে শিক্ষক সংকট সব সময়ই দেখা দেয়। মাত্র দুইজন শিক্ষকের পক্ষে ৪৮২ জন শিক্ষার্থীদেরকে সামাল দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে প্রতিনিয়ত। শিক্ষক স্বল্পতার কারনে শিশু শ্রেনী থেকে পঞ্চম শ্রেনীর ছাত্র-ছাত্রীরা শ্রেনী কক্ষের পাঠদান থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন স্কুলের পঞ্চম শ্রেনীর শিক্ষার্থী নাসরিন বেগম, ইমা বেগম, শাহিন আলম ও রাসেল আলম এবং চতুর্থ শ্রেনীর শিক্ষার্থী আবুল হোসেন,তানজিলা বেগম, হোসনে আরা বেগম সহ অন্যান্য ক্লাসে শিক্ষার্থীরা জানান, স্যার না থাকায় ক্লাসে সঠিকভাবে লেখাপড়া হচ্ছে না, বার্ষিক পরীক্ষায় আশানুরুপ ফলাফল নিয়ে তারা চিন্তিত রয়েছেন। তবে অতিদ্রুত শিক্ষক সমস্যা সমাধান করা হলে ক্লাসে নিয়মিত পড়াশোনা করানো হলে তারা ভালো ফলাফল করতে পারবেন বলে জানান।  স্কুল পরিচালনা কমিটি সভাপতি আব্দুল স্কুলের প্রধান শিক্ষক আব্দুস শুক্কুর জানান, আটজন শিক্ষকের পদে তিনি সহ দুইজন কর্মরত রয়েছেন। মাসিক সম্বন্বয় সভা ও অফিসিয়াল কাজে তিনি বড়লেখায় চলে আসলে সেদিন একজন সহকারী শিক্ষককে স্কুলের সমস্ত কিছু সামাল দিতে হয়। শিক্ষক না থাকায় ছাত্র-ছাত্রীদের লেখাপড়ার চরম ব্যাঘাত হচ্ছে। কর্মরত সহকারী শিক্ষিকা মালেকা খাতুন মুক্তিযোদ্ধা কোটায় কুষ্টিয়া জেলা থেকে বছর খানেক আগে যোগদান করলেও গত জুন মাসে নিজ জেলায় বদলির জন্য মহাপরিচালক, ঢাকা থেকে বদলীর আদেশ করে রেখেছেন। নতুন শিক্ষক নিয়োগ হলেই তিনিও চলে যাবেন। শিক্ষক সংকটের কথা স্থানীয় সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদের হুইপ মোঃ শাহাব উদ্দিন, উপজেলা চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম সুন্দর সহ উপজেলা শিক্ষা অফিসার থেকে শুরু করে উধ্বর্তন মহলে আমি লিখিতভাবে জানিয়েছি। আমার আবেদনের কারনে উপজেলা শিক্ষা কমিটির সুপারিশের প্রেক্ষিতে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা গত ২৯ সেপ্টেম্বর তিনজন সহকারী শিক্ষককে ডেপুটেশনে চলতি অক্টোবর মাসের ১২ তারিখে স্কুলে যোগদানের নিদের্শ দেন। তন্মধ্যে ডেপুটেমনে শাহাদত হোসেন কাশেম যোগদান করলেও অপর দুই শিক্ষক নাজিম উদ্দিন ও আব্দুল হান্নান অদ্যাবধি যোগদান করেননি। উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা হেমেন্দ্র চন্দ্র দেবনাথ উক্ত স্কুলে শিক্ষক সংকটের সত্যতা স্বীকার করে জানান, ডেপুটেশনে তিনজন শিক্ষকের মধ্যে একজন যোগদান করেছেন। অপর দুইজন শিক্ষক লিখিতভাবে পারিবারিক অসুবিধার কথা জানিয়ে যোগদানের অপরাগতা জানিয়েছেন। এ বিষয়ে উপজেলা শিক্ষা কমিটিকে বিষয়টি অবহিত করে প্রযোজনীয ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। 
               

 
 
 
 
 
 
 

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে, উপজেলা গভর্ন্যান্স প্রজেক্ট ও ইউনিয়ন গভর্ন্যান্স প্রজেক্ট স্থানীয় সরকার বিভাগের সহযোগিতায় “খাদ্যে ভেজাল বন্ধ করে, ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে রক্ষা কর” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে খাদ্যে ভেজাল: জনস্বাস্থ্য, নৈতিকতা, আইনের কার্যকর প্রয়োগ এবং সামাজিক সচেতনতা সৃষ্টি বিষয়ক বর্ণাঢ্য র‌্যালী ও কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
    বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১টায় উপজেলা পরিষদ চত্বর থেকে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের হয়ে উপজেলা সদরের প্রধান প্রধান রাস্তা প্রদক্ষিণ করে উপজেলা সদরের শান্তিগঞ্জ বাজারস্থ এফআইভিডিবি ট্রেনিং সেন্টারে গিয়ে শেষ হয়।
    পরে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুর্শেদা জামানের সভাপতিত্বে, উপজেলা ট্যাকনিশিয়ান মনোয়ার হোসেন হিমেলের পরিচালনায় কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাজী আবুল কালাম।
    কর্মশালায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাওঃ তৈয়্যিবুর রহমান চৌধুরী, উপজেলা মৎস্য অফিসার সীমা রানী বিশ্বাস, উপজেলা মেডিকেল অফিসার ডা. সুকান্ত সিংহ। 
    কর্মশালায় সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপজেলা প.প. কর্মকর্তা চৌধুরী রাজিব মোস্তফা।
এ সময় উন্মুক্ত আলোচনায় বক্তব্য রাখেন দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি হাজী তহুর আলী, সমাজ সেবী আব্দুল হাই জায়গীরদার রাজ।
    এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আতাউর রহমান, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ স¤পাদক কাজী এম জমিরুল ইসলাম মমতাজ, উপজেলা ক¤িপউটার ফেয়ার ট্রেনিং ইনস্টিটিউটের পরিচালক সাংবাদিক সোহেল তালুকদার, উপজেলা আওয়ামী লীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক তাজুদ মিয়া সহ উপজেলার বিভিন্ন বাজারের ঔষধ ব্যবসায়ী, ফল ও সবজী ব্যবসায়ী ও উপজেলার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ প্রমূখ।


               

 
 
 
 
 
 
 

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি
সুনামগঞ্জ জেলার তাহিরপুরে বিএনপির দুইগ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনায় ৬৪জনের নাম উল্লেখসহ ৫শ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার সকালে মামলাটি দায়ের করেছেন থানার এসআই শাহালম। মামলায় জেলা বিএনপি নেতা রাখাব উদ্দিন,জুনাব আলী,আবুল কালাম,ছাত্রনেতা মেহেদী হাসান উজ্জল,শাকাওয়াত হোসেন, মাহবুব মল্লিকসহ ৬৪জনে নাম উল্লেখ করা হয়েছে। আর অন্যান্য আসামীদের অজ্ঞাত রাখা হয়েছে। উল্লেখ্য,গত বুধবার জেলা থেকে ঘোষিত নতুন আহবায়ক কমিটি নিয়ে বিএনপির বিবাধমান দুইগ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। এসময় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া,ইটপাটকেল নিক্ষেপ হয়। সংঘর্ষের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ১০রাউন্ড টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে পুলিশ। এঘটনায় উভয়পক্ষের আহত হয় ২০জন।
               

 
 
 
 
 
 
 

ছাতক প্রতিনিধিঃ
ছাতকে শত্রুতা বশত এক মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রীর স্বাক্ষর নিয়ে দু’ব্যাক্তির নামে যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনালে মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। মৃত স্বামীর নাম মুক্তিযোদ্ধা তালিকায় অন্তর্ভূক্ত করতে স্ত্রী চন্দ্রমালার দেয়া স্বাক্ষর নিয়ে এ মামলা দায়ের করা হয়। জানা যায়, নোয়ারাই ইউনিয়নের রাজারগাঁও গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা চমক আলীর নাম মুক্তিযোদ্ধা তালিকায় অন্তর্ভূক্ত না হওয়া অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। সম্প্রতি একই গ্রামের আব্দুল ওয়ারিছ চমক আলীকে মুক্তিযোদ্ধা তালিকাভুক্ত করতে তার স্ত্রী চন্দমালার কাছ থেকে বেশ ক’টি কাগজে স্বাক্ষর নেয়। এসব কাগজ-পত্রের মধ্যে আব্দুল ওয়ারিছের প্রতিপক্ষ একই গ্রামের রজব আলী ও মনফর আলীর বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনালে দায়ের করার জন্য লিখিত অভিযোগেও কৌশলে স্বাক্ষর নেয়া হয়। পরবর্তীতে দায়েরি অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্তটিম চন্দ্রমালার সুনামগঞ্জ শহরের বাসায় গেলে তিনি তখন বুঝতে পারেন প্রতারনার আশ্রয় নিয়ে আব্দুল ওয়ারিছ তার প্রতিপক্ষকে ফাঁসানোর জন্যই কৌশলে তার স্বাক্ষর নিয়েছে। চন্দ্রমালা বেগমের ভাই সুনু মিয়া জানান, চমক আলী মুক্তিযুদ্ধে অংশ গ্রহন করলেও মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকায় তার নাম উঠে আসেনি। যুদ্ধের সময় চন্দ্রমালা ছোট ছিল। দেশ স্বাধীনের কয়েক বছর পর চমক আলীর সাথে তার বিয়ে হয়েছে। চমক আলীর মৃত্যুর পর চমক আলীর নামে ভাতার কার্ড তৈরী ও তাকে মুক্তিযোদ্ধার তালিকাভুক্ত করার জন্য আব্দুল ওয়ারিছ চন্দ্রমালার কাছ থেকে কাগজ-পত্রে স্বাক্ষর নেয়ার সময় ওই দরখাস্তেও প্রতারনা করে স্বাক্ষর নেয়া হয়। আর এ দরখাস্ত দিয়েই চন্দ্রমালার নামে তার অজ্ঞাতসারে যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনালে অভিযোগ দায়ের করা হয়। খুঁজ নিয়ে জানা গেছে আব্দুল ওয়ারিছ ও রজব আলী সরকারি ১৩কেদার ভূমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। পক্ষে-বিপক্ষে আদালতে ডজনখানেক মামলাও বিচারাধীন রয়েছে। স্বাধীনতা যুদ্ধে হানাদার বাহিনীর হাতে নিহত হন চমক আলীর ভাই মনু মিয়া ও বকল মিয়া। এ ঘটনা প্রত্যক্ষদর্শী আকবর আলী ও নিহতদের ভাই আসাব আলী জানান, চমক আলী মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেয়ার অপরাধে তার ভাই মনু ও বকলকে হানাদার বাহিনীর লোকজন ধরে নিয়ে বড়গল্লা গ্রামের পীর সাহেবের টিলার পাশেগুলি করে হত্যা করে। এ হত্যা কান্ডের ঘটনায় এলাকার কোন লোক জড়িত ছিলনা। রাজারগাঁও গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা সুরুজ আলী জানান, চমক আলী মুক্তিযুদ্ধে অংশ গ্রহন করলেও তার নাম মুক্তিযোদ্ধা তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হয়নি। এ কারনেই চমক আলীর দু’ভাইকে পাক-হানাদাররা ধরে নিয়ে হত্যা করেছিল। রাজারগাঁও গ্রামের সমুজ আলী, আশ্রাব আলী, আমজদ আলী, আব্দুল তোয়াহিদ, আমির আলী, মোশারফ আলী, মনির উদ্দিন, কালা মিয়া, মখন মিয়া, মছদ্দর আলী জানান, গ্রামের মনু মিয়া ও বকল মিয়াকে ১৯৭১সালে যুদ্ধ চলাকালীন সময়ে পাক-হানাদাররা হত্যা করেছে। এতে এলাকার কোন লোক জড়িত ছিলনা। যুদ্ধাপরাধট্রাইব্যুনালে দেয়া অভিযোগটি সম্পূর্ন পরিকল্পিত বলে তারা মন্তব্য করেন।

               

 
 
 
 
 
 
 

জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী, ছাতক প্রতিনিধিঃ
ছাতকে ভূমির মালিকানা নিয়ে দু’পক্ষ মুখোমুখি অবস্থানে রয়েছে। যে কোন সময় সাংঘর্ষিক পরিস্থিতি সৃষ্টি হওয়ার আশংকা করছে স্থানীয়রা। এ পরিস্থিতিতে এলাকার শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষায় মঙ্গলবার ছাতক থানার এসআই অমৃত কুমার দেব উভয় পক্ষকে সতর্কীকরণ নোটিশ প্রদান করেছেন। অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেয়ার কথাও নোটিশে উল্লেখ করেছেন তিনি। জানা যায়, ভূমির মালিকানা নিয়ে ছাতক সদর ইউনিয়নের তিররাই-মুক্তিরগাঁও গ্রামের খলিলুর রহমানের সাথে একই গ্রামের সৈয়দুর রহমানের দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। গত ২৫অক্টোবর খলিলুর রহমানের মৎস্য খামারের লক্ষাধিক টাকা মুল্রের মাছ লুন্ঠনের অভিযোগে সৈয়দুর রহমানসহ ৪জনের বিরুদ্ধে ছাতক থানায় অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, খলিলুর রহমানের ভূমি প্রতিপক্ষরা জোরপূর্বক  দখলে নেয়ার চেষ্টা করে আসছে। এ নিয়ে একাধিকবার গ্রাম্য সালিশ-বৈঠকে নিস্পত্তি করা হলেও প্রতিপক্ষরা ভূমি দখলের অপচেষ্টা অব্যাহত রাখে।

মঙ্গলবার প্রতিপক্ষের লোকজন খলিলুর রহমানের ভূমিতে জোরপূর্বক মাটি ভরাট করে দখল নেয়ার চেষ্টা করলে দু’পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। সাংঘর্ষিক পরিস্থিতি সৃষ্টি না হয়ার জন্য পুলিশ উভয় পক্ষকে সতর্কীকরণমূলক এ নোটিশ প্রদান করেন।
               

 
 
 
 
 
 
 

ফেঞ্চুগঞ্জ আদর্শ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পিএসসি পরীক্ষার্থীদের সংবর্ধনা ও দোয়া মাহফিল  মঙ্গলবার দুপুরে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ আনোয়ার হোসেন। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রোজী বেগমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো: শফিক উদ্দিন, শিক্ষক সমিতির সভাপতি মো: জিয়াউল ইসলাম চৌধুরী, সহকারী পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা মো: মাজহারুল ইসলাম, বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মো: আব্দুল লতিফ ও সহ-সভাপতি মুরাদুল করিম। সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন পরীক্ষার্থী রাসিদা তাসমিন ইপসি। শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক শহিদুজ্জামানের সঞ্চালনায় উক্ত সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন দরগাপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিহিত পাল, বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা শুলি বেগম, ফারজানা আক্তার, রূপালী পাল, সেলিনা আক্তার, শিক্ষা অফিসের অফিস সহকারী আজিজুর রহমান ও পরীক্ষার্থীদের পক্ষে বক্তব্য রাখে প্রাঞ্জলি পাল। মিলাদ মাহফিল এবং দোয়া পরিচালনা করেন স্থানীয় ইসলাম বাজার মসজিদের ইমাম মাওলানা আজির উদ্দিন।
               

 
 
 
 
 
 
 

সিলেট সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আশফাক আহমদ বলেছেন, কৃষিখাতে সরকারের সুযোগ সুবিধা প্রদানের ফলে দেশ আজ খাদ্যে স্বয়ংসম্পুর্ণ। বর্তমান সরকার বিনামূল্যে সার, বীজ, কীট নাশক, ডিজেল ভর্তুকি, কৃষি যন্ত্রপাতি, কৃষি কার্ড, ১০ টাকার বিনিময়ে ব্যাংকে একাউন্ট খোলার সুযোগ করে দিয়ে প্রমাণ করেছে এ সরকার কৃষিবান্ধব সরকার। কৃষিখাতে কৃষকদের উৎসাহিত করতে বিভিন্ন প্রকল্প চালু করা হয়েছে। সম্প্রতি হাওড় অঞ্চলে বন্যায় তলিয়ে যাওয়া ধানক্ষেত ক্ষতিগ্রস্থদের মধ্যে নাবিজাতের রোপন আমনের চারা বিতরণ করা হয়েছে। যাতে কৃষকরা ক্ষতি পুষিয়ে উঠতে পারে।
বুধবার সদর উপজেলার হাটখোলা, খাদিমনগর ও খাদিমপাড়া ইউনিয়নের ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকদের মধ্যে সদর উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে ধান বীজ বিতরণকালে পৃথক পৃথক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন তিনি।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা কৃষি অফিসার সারওয়াউল আহসান, খাদিমপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম বিলাল, হাটখোলা ইউপি চেয়ারম্যান জমির উদ্দিন, সাবেক চেয়ারম্যান হাজী মশাহিদ আলী, খাদিম নগর ইউপি চেয়ারম্যান দিলওয়ার হোসেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল আজিজ, খাদিমপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শেখ বদরুল ইসলাম, উপ-সহকারী কৃষি অফিসার ফজলে মনজুর ভূইয়া, এমরান আহমদ, নমিতা দাস, জিল্লুর রহমান, মাকসুদা বেগম, মঞ্জুআরা বেগম, জাহেদুল ইসলাম, গিয়াস উদ্দিন, আতিকুর রহমান, ইউপি সদস্য বশির উদ্দিন, আ’লীগ নেতা বদরুজ্জামান পাখি, ফরিদ আহমদ, আসলম মিয়া প্রমুখ।
               

 
 
 
জনমত জরিপ

তিস্তা অভিমুখে লংমার্চ করে বিএনপি কি রাজনৈতিক ভাবে লাভমান হয়েছে?

 
হ্যাঁ না
 
 

ফলাফল দেখুন

 
 

শাবি প্রতিনিধি:
আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শাবিপ্রবি) ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে একজন নিহত এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরসহ ৫ জন গুলিবিদ্ধ হবার ঘটনায় তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির সদস্যরা হলেন গনিত বিভাগের প্রফেসর ড. ইলিয়াস উদ্দিন বিশ্বাস, রসায়ন বিভাগের প্রফেসর ড, মোহাম্মদ ইউনুছ, ব্যবসা প্রশাসন বিভাগের প্রফেসর ড. নজরুল ইসলাম।
বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টায় অনুষ্ঠিত সিন্ডিকেটের বৈঠকে এই তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।

 
 
 
 

তৈয়বুর রহমান টনি নিউইর্য়কঃ
নিউইয়র্ক: নিউইয়র্কের বাফেলোয় মঙ্গলবার ব্যাপক তুষারঝড়ে তিন থেকে পাঁচ জনের  মৃত্যু হয়েছে। রেকর্ড পরিমাণ তুষারপাতের কারণে লোকজন গাড়ি ও বাড়িঘরে আটকা পড়েছে। কর্তৃপক্ষ একথা জানায়। নায়াগ্রার কাছে নগরীর দক্ষিণের অনেক এলাকায় ২৪ ঘণ্টারও কম সময়ের মধ্যে চার থেকে পাঁচ ফুট উচ্চতার তুষার জমে যায়। পাঁচ মৃত্যু ঝড়, তুষার প্রায় ১৫ ফুট নিচে চাপা তার গাড়ী পাওয়া গেছে যারা সর্বশেষ একটি ৪৬ বছর বয়েসী মানুষ বাঁধা ছিল, টবে বলেন. একজনের একটি ট্রাফিক দুর্ঘটনায় নিহত ও তিনজন অন্যদের হার্টের সমস্যা সহন পর মারা যায়।

 

ইরি কাউন্টির নির্বাহী কর্মকর্তা মার্ক পোলোনকার্জ স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, ‘আমাদের কাউন্টির অনেক এলাকায় মাত্র তিনদিনে রেকর্ড পরিমাণ তুষারপাতের ঘটনা ঘটেছে।’ তিনি আরো জানান, এতে পাচঁজনের মৃত্যু হয়েছে।স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়, তুষারপাতের ঘটনায় অনেক গাড়ি রাস্তায় এবং লোকজন ঘরবাড়িতে আটকা পড়েছে। গভর্নর অ্যান্ড্রিউ কোমো জানান, ভুক্তভোগী লোকজনকে সহযোগিতা করতে ন্যাশনাল গার্ডের সদস্যদের ডেকে পাঠানো হয়েছে।

 
 
 

সিলেট, ২০ নভেম্বর :
‘মেয়র আরিফের নামে ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা চার্জশিট থেকে নাম প্রত্যাহার করতে হবে’-এই দাবিতে বৃহস্পতিবার  অনুষ্ঠিত হলো বিশাল মানববন্ধন। দীর্ঘ এই মানববন্ধনে সিলেটের সর্বস্তরের মানুষ অংশ নেয়। কোর্ট পয়েন্ট থেকে মানববন্ধন এর সূচনা হলেও মানববন্ধনের ব্যাপ্তি একে একে ছড়িয়ে পড়ে সুরমা পয়েন্ট, জিন্দাবাজারসহ আশপাশ এলাকায়।
বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টায় সিটি কাউন্সিলরদের উদ্যোগে আয়োজিত এই মানববন্ধনে সিলেট নগরবাসী তাদের উন্নয়নকামী প্রিয় নেতার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে স্বত:ফুর্তভাবে অংশগ্রহন করেন। ব্যানার, ফেস্টুন, প্লেকার্ড ঝুলিয়ে তারা প্রতিবাদ জানান। সিলেট নগরীর বিভিন্ন ওয়ার্ড থেকে হাজারো জনতা সিটি কাউন্সিলরদের ডাকে সাড়া দিয়ে মানববন্ধনে যোগ দেওয়ার পাশাপাশি কেউবা চলতি গাড়ী থামিয়ে, কেউ রিকশা থেকে নেমে মানববন্ধনে অংশ নিয়ে নিজেদের ক্ষোভের বহি:প্রকাশ করেন। দলমত নির্বিশেষে সববয়সী মানুষের উপস্থিতির কারণে এসময় সিলেটের প্রধান প্রধান সড়কে এক অভূতপূর্ব দৃশ্যের অবতারণা করা হয়।
মানববন্ধনে অংশগ্রহনকারী সকল জনতা বার্তা দিলেন-‘সিলেটের উন্নয়নের নিবেদিতপ্রাণ ব্যক্তিত্ব মেয়র আরিফের বিরুদ্ধে কোন ষড়যন্ত্র মেনে নেবে না সিলেটের জনগন।’
মানববন্ধন চলাকালে উপস্থিত সম্মানিত কাউন্সিলর, সিলেটের বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক, পেশাজীবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।
এসময় বক্তরা বলেন, সিলেটবাসীসহ দেশবাসীর কাছে সুস্পষ্ট যে, শুধুমাত্র হয়রানী করার জন্যই সিলেটের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর নাম সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এ এম এস কিবরিয়া হত্যাকান্ডের সম্পূরক চার্জশিটে অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে। কোন যুক্তিসঙ্গত কারণ ছাড়াই ঘটনার ১০ বছর পর আকস্মিকভাবে তার নাম অন্তভূক্তকরণ ঘৃন্য ষড়যন্ত্র ছাড়া আর কিছুই নয়।
বক্তারা বলেন, এক কোটি সিলেটবাসী আছে মেয়র আরিফের পাশে, এই ষড়যন্ত্রের জাল ছিন্ন হবে, সত্যের জয় হবেই। যারা এই ঘৃণ্য ষড়যন্ত্রে সামিল হয়েছে তাদের প্রতি হুশিয়ারী উচ্চারণ করে বক্তারা বলেন, ‘যারা সিলেটের উন্নয়ন চায় না, যারা সিলেটকে পেছনের দিকে নিতে চায়, তারাই এই অশুভ তৎপরতা শুুরু করেছে। সিলেটের উন্নয়ন বিদ্বেষী এই অপশক্তিকে সিলেটের উন্নকামী জনগন দাঁতভাঙ্গা জবাব দেবে।’
মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য রাখেন ১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর তৌফিকুল হাদী, ২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর রাজিক মিয়া, ৫ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর রেজওয়ান আহমদ, ৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ফরহাদ চৌধুরী শামীম, ১০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এডভোকেট ছালেহ আহমদ চৌধুরী, ১২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সিকন্দর আলী, ১৪ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম মুনিম, ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ছয়ফুল আমিন বাকের, ১৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আব্দুল মুহিত জাবেদ, ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর দেলোয়ার হোসেন সজীব, ১৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এ বি এম জিলøুর রহমান উজ্জল, ১৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর দিনার খান হাসু, ২১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আব্দুর রকিব তুহিন, ২২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সৈয়দ মিসবাহ উদ্দিন, ২৪ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সোহেল আহমদ রিপন, ২৫ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর তাকবির ইসলাম পিন্টু, ২৭ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আব্দুর জলিল নজরুল, সংরক্ষিত ১ আসনের কাউন্সিলর কুহিনুর ইয়াসমীন ঝর্না, সংরক্ষিত ৩ আসনের কাউন্সিলর রেবেকা বেগম, সংরক্ষিত  ৪ আসনের কাউন্সিলর আমেনা বেগম রুমি, সংরক্ষিত  ৫ আসনের কাউন্সিলর দিবা রাণী দে, সংরক্ষিত  ৮ আসনের কাউন্সিলর সালেহা কবীর শেপী, সংরক্ষিত  ৯ আসনের কাউন্সিলর এডভোকেট রোকসানা বেগম শাহনাজ, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ এম আতাউর রহমান পীর, সাবেক কাউন্সিলর সেলিম আহমদ রনি, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আমিনুল হক চৌধুরী তপন, ব্যবসায়ী নেতা মেহেদী হাসান, মণিপুরী কালাচালার সেন্টারের সেক্রেটারী প্রিয়বত সিংহ রাজ, ব্যবসায়ী সুরমান আলী, এইচ এম আব্দুর রহমান, এডভোকেট আজিজুর রহমান উবেদ, এডভোকেট বিশ্বজিত দাস বিপ্লব, ছালিকুর রহমান, এহছানুল করিম মিশু, তৌফিকুল ইসলাম বাবলু, উত্তম সিংহ রতন, সালাহ উদ্দীন রিমন, সিরাজুল ইসলাম, ইলিয়াস মেম্বার, রিয়াদুল হাসান রুহেল, মাহতাব উদ্দিন, শেখ ফজলুর রহমান, রায়হান আহমদ, আলমাস আহমদ শুক্কুর প্রমুখ।                              

 
 
 

শাবি, ২০ নভেম্বর : 
শাবি প্রতিনিধি: শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের  দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ১ জন নিহত হওয়ার ঘটনায় অনির্দিষ্টকালের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষনা করেছে কর্তৃপক্ষ।
বৃহস্পতিবার দুপুরে এক জরুরি সিন্ডিকেট সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। ছাত্রদেরকে বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টার মধ্যে এবং ছাত্রীদেরকে (২১ নভেম্বর) শুক্রবার সকাল ৯টার মধ্যে হল ত্যাগের নির্দেশ দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।
আধিপত্য বিস্তার, হল দখল ও কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়(শাবি) শাখার সভাপতি সঞ্জীবন চক্রবর্তী পার্থ ও সহ-সভাপতি অঞ্জন রায় সমর্থিত গ্রুপের নেতা-কর্মীদের মধ্যে চলমান সংঘর্ষে শাবি প্রক্টর হিমাদ্রি শেখর রায়, শাখা সহ-সভাপতি অঞ্জন রায়সহ অন্তত ৭ জন গুলিবিদ্ধ ও ১৫জন আহত হয়েছে। এদের মধ্যে সুমন নামের বহিরাগত এক ছাত্রলীগ কর্মী গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা গেছে বলে জানিয়েছেন সিলেট এম.এ.জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ওমর ফারুক। নিহত সুমন সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ছাত্র বলে জানা গেছে।
               

 
 
 

সিলেট, ২০ নভেম্বর :
শাবি প্রতিনিধি: আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শাবিপ্রবি) ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে একজন নিহত হয়েছে। সংঘর্ষকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরসহ ৫ জন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। পুলিশ সদস্যসহ আহত হয়েছেন আরো অন্তত ১১ জন। এ ঘটনায় অনির্দিষ্টকালের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ।বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত শাবিপ্রবি ছাত্রলীগের অঞ্জন-উত্তম ও পার্থ-সবুজ গ্রুপের মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষে একজন নিহত হয়। পরে পুলিশ গিয়ে রাবার বুলেট ও শর্টগানের গুলি ছুঁড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

নিহত সুমন চন্দ্র দাস সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির বিবিএ শেষ বর্ষের ছাত্র। সে দিরাই উপজেলার সামারচর গ্রামের পূজা বাড়ির হিরাধনের ছেলে। সংঘর্ষ চলাকালে সে অঞ্জন-উত্তম গ্রুপের হয়ে শাবিতে গিয়েছিল। গুলিবিদ্ধ হয়ে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান তিনি।

গুলিবিদ্ধ অন্যান্যের মধ্যে রয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর হিমাদ্রী শেখর রায়, শাবি ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ও অর্থনীতি বিভাগের মাস্টার্সের ছাত্র অঞ্জন রায় এবং সমাজবিজ্ঞান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষ প্রথম সেমিস্টারের ছাত্র ও ছাত্রলীগ কর্মী খলিলুর রহমান। বাকি গুলিবিদ্ধ দুইজনের নাম জানা যায়নি।

আহত হয়ে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ছাত্রলীগ কর্মী হুসাইন মোহাম্মদ সাগর ও আবদুস সালাম মঞ্জু। নজরুল, সেলিম, আহাদ ও মিজান প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন। এছাড়া সংঘর্ষে জালালাবাদ থানা কনস্টেবল ইব্রাহীম আহত হন।

দীর্ঘদিন ক্যাম্পাসের বাইরে থাকার পর ক্যাম্পাসের দখল নিতে মরিয়া হয়ে উঠেছে শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি সঞ্জীবন চক্রবর্তী পার্থ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায় সঞ্জীবন চক্রবর্তী পার্থের নেতৃত্বে ৬০-৭০ জন নেতা-কর্মী শাহপরান হলে হামালা চালিয়ে ৩০টির অধিক রুমে ব্যাপক ভাংচুর চালায়। শাহপরান হল দখলের পর তারা ক্যাম্পাসে শোডাউন করে পুনরায় ছাত্র হলে হামলা চালিয়ে বেশ কয়েকটি কক্ষ ভাংচুর করে। দফায়-দফায় চলা এ সংঘর্ষে উভয় পক্ষের মাঝে প্রায় ৫০ রাউন্ড গুলি বিনিময় হয়। হামলার এক পর্যায়ে ক্যাম্পাস ছাড়া হয় অঞ্জন-উত্তম গ্রুপের নেতা-কর্মীরা। পরবর্তীতে তারা আবার অস্ত্রশস্ত্রসহ প্রস্তুতি নিয়ে ক্যাম্পাসে আসে। ক্যাম্পাসে উভয় পক্ষের মাঝে উত্তেজনা বিরাজ করছে। দুপুর ১২.টার দিকে শাবি ভিসি, প্রভোস্ট ও প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যবৃন্দ হল পরিদর্শন করেছেন।

এদিকে ক্যাম্পাসে বিপুল পরিমান পুলিশ মোতায়েন থাকলেও সংঘর্ষ বন্ধে তাদেরকে কোন কার্যকর পদক্ষেপ নিতে দেখা যায়নি বলে অভিযোগ করেছেন সাধারন শিক্ষার্থীরা। এ ব্যাপারে জালালাবাদ থানার ওসি আক্তার হোসেন জানান, যেকোন পরিস্থিতি মোকাবেলায় ক্যাম্পাসে আইনশৃঙ্খলা বাহিনি সতর্কাবস্থায় রয়েছে।
                                                            

 
 
 

সিলেট, ২০ নভেম্বর :
সিলেট মহানগর বিএনপির আহবায়ক ডাঃ শাহরিয়ার হোসেন চৌধুরী বলেন, বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান জননেতা তারেক রহমান বিগত দিন গুলোতে বাংলাদেশের মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে কাজ করেছেন। অচিরে দেশে ফিরে বাংলাদেশের মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে তিনি কাজ শুরু করবেন।

তিনি বৃহস্পতিবার রাত ১২টা ১ মিনিটে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান জননেতা তারেক রহমানের ৫০ তম জন্ম বার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষ্যে আয়োজিত আলোচনা সভা ও কেক কাটা অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্য উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

সিলেট মহানগর বিএনপির আহবায়ক কমিটির অন্যতম সদস্য হুমায়ুন কবির শাহীন ও আজমল বক্ত সাদেক‘র যৌথ পরিচালনায় মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব বদরুজ্জামান সেলিম বলেন, অচিরে জনতার তারেক রহমান জনতার মাঝে ফিরবেন এবং তার সুযোগ্য নেতৃত্বের মধ্যে দিয়ে বর্তমান ফ্যাসিস্ট আওয়ামী সরকারের পতন নিশ্চিত করা হবে।

এসময় আরো বক্তব্য রাখেন মহানগর বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য রেজাউল হাসান কয়েছ লোদী, এডভোকেট হাবিবুর রহমান হাবিব, মিফতা সিদ্দিকী, আব্দুর রহিম, হাদীয়া চৌধুরী মুন্নী, এমদাদ হোসেন চৌধুরী, মাহবুব চৌধুরী, বদরুনূর সায়েক, মুফতি নেহাল, মুকুল মোর্শেদ।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, মহানগর বিএনপি নেতা ডাঃ আশরাফ আলী, সুহেল বাছিত, আব্দুস শুকুর, আব্দুল আহাদ হেলাল, সৈয়দ বাবুল, আমিনুর রহমান খোকন, আক্তার আহমদ, রুহুল কুদ্দুস চৌধুরী হামজা, জেবুল হোসেন ফাহিম, আশরাফ গাজী, মামুন রহমান, আবু সাঈদ তাহের, জাবেদ আহমদ, ছাত্রদল নেতা মোস্তাক আহমদ রুমন, রিয়াদুল হাসান রুহেল, মাহবুব চৌধুরী, নজমুল ইসলাম প্রমুখ।

 
 
 

সুনামগঞ্জ, ২০ নভেম্বর:
সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি: সুনামগঞ্জ জেলার তাহিরপুর সীমান্ত থেকে আটক ৫ বাংলাদেশী কয়লা শ্রমিককে ফেরত দিয়েছে বিএসএফ। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায় মামলা দিয়ে সবাইকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। আটককৃতরা হল-উপজেলার উত্তর শ্রীপুর ইউনিয়নের লালঘাট গ্রামের হাদিস মিয়ার ছেলে শহিদ মিয়া(২৩),আমিনুল ইসলাম(২০),রিয়াজ উদ্দিনের ছেলে লিটন মিয়া(১৮),আব্দুর রশিদের ছেলে দিন ইসলাম(১৬),আব্দুর রহিমের ছেলে শহিদ উল্লা(১৯)। পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়,প্রতিদিনের মতো গত বুধবার বিকেলে চাঁরাগাও সীমান্তের ১১৯৬ পিলার এলাকা দিয়ে লালঘাট গ্রামের মঞ্জিল মিয়া,জয়নাল মিয়া,ঝানু মিয়া,আব্দুল হাইর নেতৃত্বে প্রায় ২০-২৫জন শ্রমিক চোরাইপথে ভারত থেকে কয়লা পাচাঁরের সময় বিএসএফ ধাওয়া করে ৫শ্রমিককে ধরে নিয়ে যায়। আর অন্যান্য শ্রমিকরা পালিয়ে আসতে সক্ষম হয়। পরে রাত ৮টায় বড়ছাড়া সীমান্তে পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে টেকেরঘাট কোম্পানী কমান্ডারের নিকট আটক ৫ শ্রমিককে ফেরত দেয় বিএসএফ। এরআগে গত মঙ্গলবার একই সীমান্তের বাঁশতলা এলাকা দিয়ে কয়লা পাচাঁর করার সময় চোরাই কয়লার গুহায় চাপা পড়ে চাঁরাগাঁয়ের মনা মিয়া (২৮) নামের এক শ্রমিক গুরুতর আহত হয়। চাঁরাগাঁও বিজিবি ক্যাম্পের প্রত্যক্ষ মদদে ওই সীমান্তে চোরাচালান ব্যাপক ভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। টেকেরঘাট ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার আব্দুর রউফ জানান,আটককৃত ৫ শ্রমিককে রাতে ফেরত দেওয়ার পর আজ বুধবার সকালে সবার বিরোদ্ধে মামলা দিয়ে থানায় সোপর্দ করলে পুলিশ তাদেরকে জেলহাজতে পাঠিয়েছে।
উল্লেখ্য,সুুনামগঞ্জ ৮ বিজিবি ব্যাটালিয়নের কমান্ডিং অফিসারের কড়া নজরদারির কারণে ক্ষনিকের জন্য চোরাচালান বন্ধ হলেও স্থানীয় চাঁরাগাঁও বিজিবি ক্যাম্পের প্রত্যক্ষ মদদে গত সপ্তাহখানে যাবত চাঁরাগাঁও সীমান্তে চোরাচালানীরা আবারও সক্রিয় হয়েছে উঠেছে।
               




 
 
 

শাবি প্রতিনিধি:
আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে, শাখার সভাপতি সঞ্জীবন চক্রবর্তী পার্থ ও সহ-সভাপতি অঞ্জন রায় সমর্থিত গ্রুপের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ চলছে। দীর্ঘদিন ক্যাম্পাসের বাইরে থাকার পর ক্যাম্পাসের দখল নিতে মরিয়া হয়ে উঠেছে শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি সঞ্জীবন চক্রবর্তী পার্থ।
বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায় সঞ্জীবন চক্রবর্তী পার্থের নেতৃত্বে ৬০-৭০ জন নেতা-কর্মী শাহপরান হলে হামালা চালিয়ে ৩০টির অধিক রুমে ব্যাপক ভাংচুর চালায়। শাহপরান হল দখলের পর তারা ক্যাম্পাসে শোডাউন করে পুনরায় ২য় ছাত্র হলে হামলা চালিয়ে বেশ কয়েকটি কক্ষ ভাংচুর করে। এসময় উভয় পক্ষের মাঝে প্রায় ৫০ রাউন্ড গুলি বিনিময় হয়। গুলিবিদ্ধ ২ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে।
শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত অঞ্জন-উত্তম গ্রুপের নেতা-কর্মীরা হল ও ক্যাম্পাস ছাড়া রয়েছে।এ নিয়ে উভয় পক্ষের মাঝে উত্তেজনা বিরাজ করছে।
                                             

 
 
 

জকিগঞ্জ প্রতিনিধি:
জকিগঞ্জ পৌরসভার উপ-নির্বাচনে নবনির্বাচিত মেয়র আব্দুল মালেক ফারুক বুধবার সকালে জকিগঞ্জ পৌরসভার দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন। জকিগঞ্জ পৌরসভার তৃতীয় নির্বাচিত মেয়রের দায়িত্ব গ্রহণ উপলক্ষে পৌর ভবন মিলানায়তনে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
নবনির্বাচিত মেয়র আব্দুল মালেক ফারুকের সভাপতিত্বে ও পৌর কাউন্সিলর ও উপজেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি কামরুজ্জামান কমরুর সঞ্চালনায় এ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সিলেট জেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা¡ মাসুক উদ্দিন আহমদ।
বিশেষ অতিথি ছিলেন, জকিগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার টিটন খীসা, খলাছড়া ইউপি চেয়ারম্যান কবির আহমদ, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার হাজী খলিল উদ্দিন। বক্তব্য রাখেন, জকিগঞ্জ থানার ওসি জামশেদ আলম, সদ্য সাবেক ভারপ্রাপ্ত মেয়র ও পৌর কাউন্সিলর বাবুল হোসাইন, কাউন্সিলর ময়নুল হক রাজু, মহিলা কাউন্সিলর হোসনে জাহান রিনা, আওয়ামীলীগ নেতা মোস্তফা আহমদ, জকিগঞ্জ বণিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল জব্বার জবাই মিয়া,জকিগঞ্জ টাউন ক্লাবের সাবেক সভাপতি এম এ মালেক, ব্যবসায়ী জামাল উদ্দিন খান, পৌর যুবলীগ সভাপতি আব্দুস সালাম প্রমূখ। উপস্থিত ছিলেন কাউন্সিলর আতাউর রহমান, আছদ্দর আলী, মকদ্দস আলী মন্টু, মহিলা কাউন্সিলর জোসনা বেগম, সালেহা বেগম, পৌর প্রকৌশলী মাহবুবুর রহমান, প্রধান সহকারী মনিরুজ্জামান, সাংবাদিক এনামুল হক মুন্না, আল হাছিব তাপাদার, সমাজসেবী আব্দুল হান্নান প্রমূখ।
এসময় পৌর কাউন্সিলরগণ ও কর্মকর্তা, কর্মচারিরা নবনির্বাচিত মেয়র আব্দুল মালেক ফারুককে ফুলের তোড়া দিয়ে বরণ করেন।               

 
 
 

সুনামগঞ্জ, ১৯ নভেম্বর:
সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি: সুনামগঞ্জ জেলার তাহিরপুরে বিএনপির দুইগ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এসময় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া,ইটপাটকেল নিক্ষেপ ও পুলিশের লাটিচার্জে প্রায় ২০জন আহত হওয়ার খরর পাওয়া গেছে। সংঘর্ষে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ১০ রাউন্ড টিয়ারশেল নিক্ষেপ করেছে। আহতদের মধ্যে রয়েছে বিএনপির ছাত্রনেতা আনিস মিয়া,গাজী মিয়া,শিপুল আহমেদ,তুষার মিয়াসহ ২০জন রয়েছে।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, বুধবার বিকাল ৪টায় উপজেলার তাহিরপুর সদর বাজারে বিএনপির নতুন কমিটির প্রতিবাদে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আনিসুল হকের নেতৃত্বে কমিটি থেকে বঞ্চিত নেতাকর্মীরা প্রতিবাদ সভা ডাকে। অন্যদিকে বিএনপি নেতা মেহেদী হাসান উজ্জলের নেতৃত্বে তারেক রহমানের বিরুদ্ধে সমন জারি প্রতিবাদে সভা ডাকে। এসময় বিবাদমান দুই গ্রুপ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। প্রায় ঘন্টাব্যাপী ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও ইটপাটকেল নিক্ষেপের ঘটনায় উভয়পক্ষের ২০জন আহত হয়। সংঘর্ষের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গিয়ে ১০রাউন্ড টিয়ারশেল নিক্ষেপ করেছে পুলিশ।
সুনামগঞ্জ পুলিশ সুপার হারুন অর-রশিদ এঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। সংঘর্ষের ঘটনার পর থেকে এলাকায় তীব্র উত্তেজনা বিরাজ করছে।  
                              

 
 
 

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:
সুনামগঞ্জ জেলার তাহিরপুর সীমান্ত থেকে ৫ বাংলাদেশী কয়লা শ্রমিককে ধরে নিয়েগেছে বিএসএফ। আটককৃতরা হলেন-উপজেলার উত্তর শ্রীপুর ইউনিয়নের লালঘাট গ্রামের শহিদ মিয়া(২৩),আমিনুল ইসলাম(২০),লিটন মিয়া(১৮),দিন ইসলাম(১৬),শহিদ উল্লা(১৯)। বুধবার বিকাল ৪টায় চাঁরাগাও সীমান্তের ১১৯৬পিলার এলাকা দিয়ে কয়লা পাচাঁরের সময় বিএসএফ তাদেরকে ধরে নিয়ে যায়।
স্থানীয়রা জানায়, প্রতিদিনের মতো লালঘাট গ্রামের মঞ্জিল মিয়া,জয়নাল মিয়া,ঝানু মিয়া,আব্দুল হাইর নেতৃত্বে প্রায় ২০-২৫জন শ্রমিক চোরাইপথে ভারত থেকে কয়লা পাচাঁর করতে যায়। এসময় বিএসএফ তাড়া করলে বেশির ভাগ শ্রমিকরা পালিয়ে আসতে সক্ষম হলেও ওই ৫ কয়লা শ্রমিকে ধরে ফেলে। এরআগে গত মঙ্গলবার একই সীমান্তের বাঁশতলা এলাকা দিয়ে কয়লা পাচাঁর করার সময় চোরাই কয়লার গুহায় চাপা পড়ে চাঁরাগাঁয়ের মনা মিয়া নামের এক শ্রমিক গুরুতর আহত হয়। চাঁরাগাঁও বিজিবি ক্যাম্প কমান্ডার মহসিন এঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান,আটককৃত ব্যক্তিরা বালিয়াঘাট সীমান্ত এলাকার বাসিন্দা। টেকেরঘাট ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার আব্দুর রউফ জানান,আটককৃত শ্রমিকদের ফেরত চেয়ে বিএসএফের নিকট চিটি পাঠানো হয়েছে।

               

 
 
 
 
 
কবিতা
শিল্প-সাহিত্
মিডিয়া
ইসলাম
Image Missing
 
 
বিনোদন
বিনোদন
বিচিত্রা
বিচিত্রা
মুক্তমঞ্চ
Image Missing
 
 
খেলাধুলা
খেলাধুলা
স্বাস্থ্য
স্বাস্থ্য
তথ্য-প্রযুক্তি
তথ্য-প্রযুক্তি
 
 
সংবাদদাতা
জীবন সদস্য
সম্পাদক
 
দেশ বিদেশ
 
 
 

নিউজ ডেস্ক:
হত্যাজনিত অপরাধের কারণে বিশ্বের কয়েকটি দেশে মোট ৫০জন বাংলাদেশি মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত হয়েছেন। এর মধ্যে ২৯ জনের মৃত্যুদণ্ড রহিতকরণের বিষয়ে সমঝোতা হয়েছে।
এছাড়া হত্যার অভিযোগে বিশ্বের কয়েকটি দেশে ৩৫ জন বাংলাদেশির বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট দেশের আদালতে মামলা বিচারাধীন রয়েছে।
সংসদে প্রশ্নোত্তরে বৃহস্পতিবার হাজী মো. সেলিমের (ঢাকা-৭) এক প্রশ্নের জবাবে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন এই তথ্য জানান।

তিনি জানান, হত্যাজনিত অপরাধের কারণে সৌদি আরবে ১২জন, দুবাইয়ে ২৩জন, আবুধাবীতে একজন, কুয়েতে ১২জন, বাহরাইনে একজন, সিঙ্গাপুরে  একজনসহ মোট ৫০জন কর্মীকে সংশ্লিষ্ট দেশের আদালত কর্তক মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিতকরা হয়েছে।
মুত্যুদণ্ডপ্রাপ্তদের মুক্তকরণের লক্ষে ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের তত্ত্বাবধানে স্থানীয় প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি ও এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে নিহত ও অভিযুক্ত উভয় পরিবারের মধ্যে সমঝোতার উদ্যোগ গ্রহন করা হয়।
ইতোমধ্যে ২৯ জন (দুবাইয়ে ২৩ জনের মধ্যে ১৯জন এবং কুয়েতে ১২জনের মধ্যে ১০জন) কর্মীর মৃত্যুদণ্ড রহিতকরণের জন্য সমঝোতা হয়েছে এবং ক্ষমাপত্র দূতাবাসে প্রেরণ করা হয়। এর মধ্যে ২১জন কর্মীর মৃত্যুদণ্ড সংশ্লিষ্ট আদালত কর্তৃক রহিত করা হয়। বাকি আটজন কর্মীর রায় অপেক্ষমাণ রয়েছে।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত সকল কর্মীকে মৃত্যুদণ্ড থেকে রক্ষার্থে সমঝোতার উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে এবং সকলকে দূতাবাসের মাধ্যমে আইনগত সহায়তা প্রদান করা হবে।
প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী জানান, হত্যার অভিযোগে সৌদিআরবে ১০জন, কুয়েতে একজন, দুবাইয়ে ১৫জন, ওমানে তিনজন, কাতারে তিনজন, মিশরে ১৭জন, বাহরাইনে একজনসহ মোট ৩৫ বাংলাদেশির বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট দেশের আদালতে মামলা বিচারাধীন রয়েছে। তাদের মুক্তকরণের জন্য দূতাবাসের মাধ্যমে আইনগত সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে।
এছাড়া সিঙ্গাপুরে একজন কর্মীকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ প্রদান করা হলেও পরবর্তীতে আপিল রায়ে মৃত্যুদণ্ড রহিত করে যাবজ্জীবন কারাদন্ড প্রদান করা হয়েছে।

ছয় বছরে বিদেশে কত কর্মসংস্থান?

বেগম লুৎফা তাহেরের এক প্রশ্নের জবাবে খন্দকার মোশাররফ হোসেন জানান,  বর্তমান সরকারের সময়ে ২০০৯ সাল হতে সেপ্টেম্বর ২০১৪ সাল পর্যন্ত মোট ২৭ লাখ ৫৯হাজার ৫৪১ জন কর্মী বিদেশে কর্মসংস্থান লাভ করেছে।

আর বিগত জোট সরকারের আমলে ২০০১  থেকে ২০০৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ১৩ লাখ ৭হাজার ৮৮জন কর্মী বিদেশে কর্মসংস্থান লাভ করেছে বলে তিনি দাবি করেন।
একেএম মাইদুল  ইসলামের (কুড়িগ্রাম-৩) এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, বিএমইটিতে সংরক্ষিত তথ্য অনুযায়ী বিগত ১০ বছরে (নভেম্বর ২০০৪ থেকে অক্টোবর ২০১৪) মোট ৫১ লাখ ৭১হাজার ৪৫৩জন কর্মী বিদেশে কর্মসংস্থান লাভ করেছে।

যুক্তরাজ্যে কত বাংলাদেশি?

সেলিম উদ্দিনের (সিলেট-৫) এক প্রশ্নের জবাবে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী জানান, যুক্তরাজ্যের আদম শুমারির তথ্য অনুযায়ী সেদেশে প্রায়  পাঁচ লাখ বাংলাদেশি স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন।

এ বছর ৬০ হাজার নারী কর্মী বিদেশ গেছেন

মোয়াজ্জেম হোসেন রতনের ( সুনামগঞ্জ-১) এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান,  ২০১৩ সালে ৬৫ হাজার ৪০০ জন নারী কর্মীর বিদেশে কর্মসংস্থান হয়েছে যা মোট কর্মী গমনের ১৩.৮%। ২০১৪ সালের অক্টোবর পর্যন্ত বিদেশগামী নারী কর্মীর সংখ্যা ৬০ হাজার ৬৯১জন।

মন্ত্রী জানান, হংকয়ের সাথে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হওয়ার পর এ পর্যন্ত ৭৬৫জন নারী কর্মী হংকং গেছেন।           

 
 
 
 
 
 

আব্দুল বাছিত,আরব আমিরাত থেকে:
বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ৫০তম জন্ম দিন উপলক্ষে  বুধবার স্থানীয় সময় রাত ১০ ঘটিকায় সংযুক্ত আরব আমিরাতে কেন্দ্রীয় বিএনপি‘র উদ্যোগে শারজার স্থানীয় এক হোটেলে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। উক্ত মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন- আরব আমিরাতের কেন্দ্রীয় বিএনপি,র সভাপতি মোঃ জাকির হোসেন ও বিএনপি,র অংঙ্গ সংগঠনের নেতা কর্মি বৃন্দ           

 
 
 
 
 
 

ঢাকা, ২০ নভেম্বর:
প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা রবিবার থেকে শুরু হচ্ছে। এবার সমাপনী পরীক্ষায় শিক্ষার্থী সংখ্যা ৩০ লাখ ৯৪ হাজার ২৬৫ জন।

এর মধ্যে প্রাথমিকে ২৭ লাখ ৮৮ হাজার ৫৪৪ ও ইবতেদায়ীতে তিন লাখ পাঁচ হাজার ৭২১ জন।

বৃহস্পতিবার প্রাথমিক ও ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা উপলক্ষে সচিবালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান এ তথ্য জানান।           

 
 
 
 
 
 

ঢাকা: বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, “শেখ মুজিবের সবচেয়ে বড় ভুল ছিল বাকশাল করা। একই ভুল করতে চলেছেন তার কন্যা শেখ হাসিনা।”

১৭ নভেম্বর মওলানা ভাসানীর মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (ন্যাপ ভাসানী) আয়োজিত সভায় বৃহস্পতিবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবে এ কথা বলেন তিনি।

আওয়ামী লীগের উদ্দেশে ফখরুল বলেন, “যে দল অতীতে গণতন্ত্রের জন্য সংগ্রাম করেছে, বেশির ভাগ মানুষের সমর্থনও পেয়েছে, সে দলটি তাঁবেদার দলে পরিণত হয়েছে।”

৫ জানুয়ারির নির্বাচনের আগে সারা দেশে এমনকি গ্রামেগঞ্জে পর্যন্ত স্বতঃস্ফূর্ত আন্দোলন হয়েছে দাবি করে ফখরুল বলেন, “যখন বিজয় প্রায় সুনিশ্চিত, তখন ষড়যন্ত্র করে বিজয় ছিনিয়ে নেয়া হয়েছে।”

বর্তমান সরকারের ওপর দেশের মানুষের আস্থা ও বিশ্বাস আছে। তাই কিছু রাজনৈতিক দল ও ব্যক্তি সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলনের ঘোষণা দিয়েও মানুষের সাড়া পায়নি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এ বক্তব্যের জবাবে বিএনপি নেতা বলেন, “৫ জানুয়ারির নির্বাচনেই প্রমাণ হয়েছে যে বিএনপির সঙ্গে জনগণ আছে না নেই।”

সভায় সভাপতিত্ব করেন ন্যাপ ভাসানীর সভাপতি আজহারুল ইসলাম। এতে বক্তব্য দেন জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টির (জাগপা) সভাপতি শফিউল আলম প্রধান।

 
 
 
 
 
 

ঢাকা, ২০ নভেম্বর :
 জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে খালেদার জিয়ার তিন লিভ টু আপিলের পরবর্তী শুনানির জন্য ২৩ নভেম্বর দিন ধার্য করেছেন আপিল বিভাগ।

বৃহস্পতিবার প্রধান বিচারপতি মো: মোজাম্মেল হোসেনের নেতৃত্বাধীন পাঁচ সদস্যের আপিল বিভাগ শুনানি শেষে এ দিন ধার্য করেন।

আজ খালেদা জিয়ার পক্ষে শুনানি করেন এ জে মোহাম্মদ আলী উপস্থিত ছিলেন।

অন্যদিকে দুদকের পক্ষে এডভোকেট খুরশিদ আলম খান উপস্থিত ছিলেন।

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় গত ১৯ মার্চ খালেদা জিয়াসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন ঢাকার বিশেষ জজ আদালতের বিচারক বাসুদেব রায়।

পরে এ অভিযোগ গঠনের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে আবেদন করেন খালেদা জিয়া। হাইকোর্ট এ আবেদন খারিজ করে দিলে তিনি আপিল বিভাগে লিভ টু আপিল করেন।

প্রসঙ্গত, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টের নামে দুর্নীতির অভিযোগে ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় মামলাটি দায়ের করে দুর্নীতি দমন কমিশন।
           

 
 
 
 
 
 

ঢাকা,২০ নভেম্বর :
সড়ক দুর্ঘটনা প্রতিরোধে চালকদের ৩ বছরের সাজা বাতিল করেছেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে আগের ৭ বছরের সাজা বহাল করার আদেশ দেওয়া হয়েছে।
বৃহস্পতিবার এক রিট আবেদনের শুনানি শেষে বিচারপতি সালমা মাসুদ চৌধুরী ও বিচারপতি খসরুজ্জামানের সমন্বয়ে গঠিত  হাইকোর্ট বেঞ্চ ওই সাজার মেয়াদ বৃদ্ধি করেন।
এছাড়া ওই সাজা পর্যাপ্ত নয় বলেও উল্লেখ করেন আদালত। আজ রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন এডভোকেট মনজিল মোরসেদ।

 

 
 
 
 
 
 

ঢাকা: আর দূরে নয়, বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে পাশে চান বিএনপির নেতারা। এ জন্য সরকারকে হটাতে সবার ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধের আহ্বান জানিয়েছেন দলটির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বুধবার বিকালে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ আহ্বান জানান। তারেক রহমানের ৫০তম জন্মদিন (২০ নভেম্বর) উপলক্ষে এটি আয়োজিত হয়।

বিএনপির চেয়ারপারসন ও তারেক রহমানের মা বেগম খালেদা জিয়া দর্শক সারিতে বসে অনুষ্ঠানের আলোচনা শোনেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, “তারেক রহমান বাংলাদেশের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব ও গণতন্ত্রের পতাকা আঁকড়ে ধরেছিলেন বলে তাকে হত্যার ষড়যন্ত্র হয়েছিল। কিন্তু যতই ষড়যন্ত্র, চক্রান্ত হোক না কেন, তা দেশের মানুষ মানবে না।”

ফখরুল বলেন, “তারেক রহমানকে আর দূরে নয়, আমরা পাশে দেখতে চাই। তিনি ম্যাডামের (খালেদা জিয়া) পাশে থেকে আমাদের উজ্জীবিত করবেন।”

নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বিএনপির মহাসচিব বলেন, “আপনারা যদি সত্যিই তারেক রহমানকে স্বাধীন দেশে দেখতে চান, তাহলে তার জন্মদিনে বর্তমান ফ্যাসিস্ট, জালেম, গণতন্ত্র ও মানুষ হত্যাকারী সরকারের বিরুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ার শপথ নিতে হবে। সরকারকে সরিয়ে তারেককে স্বাধীন বাংলাদেশ ফিরিয়ে আনতে হবে। সেটাই হবে তার জন্মদিনের বড় উপহার।”

প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচ টি ইমামের সাম্প্রতিক বক্তব্যের প্রসঙ্গ টেনে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য আ স ম হান্নান শাহ বলেন, “তিনি নির্বাচন নিয়ে যে জবানবন্দি দিয়েছেন, তাতে নির্বাচন নিয়ে আমাদের অভিযোগ সত্য প্রমাণ হয়েছে।”

তারেক রহমান তার ৫১তম জন্মদিনে মুক্তমঞ্চে ফিরে আসবেন, এমন আশা ব্যক্ত করে হান্নান শাহ বলেন, “খালেদা জিয়া যখন প্রধানমন্ত্রী ছিলেন, তখন তারেক রহমান দুটি টাকাও সরকারি তহবিল থেকে খরচ করেননি। কিন্তু সজীব ওয়াজেদ জয় উপদেষ্টা হিসেবে কোটি কোটি টাকা নিচ্ছেন। এটা বাংলাদেশের মানুষের টাকা। মানি লন্ডারিংয়ের পর্যাুয়ে পড়ে। ভবিষ্যতে তার বিরুদ্ধে এই আইন কার্যাকর করা হবে।”

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য এম কে আনোয়ার বলেন, “গণতন্ত্র ধ্বংস করে এই অবৈধ সরকার ক্ষমতায় এসেছে। ক্ষমতায় এসে তারা মিডিয়ার ওপর দমনপীড়ন চালিয়েছে। বহু গণমাধ্যম বন্ধ করে দিয়েছে। ”

তিনি বলেন, “আজ বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নেই। সর্বত্র ছাত্রলীগ-যুবলীগের সন্ত্রাস আর চাঁদাবাজিতে জনগণ অতিষ্ঠ। এই অচলাবস্থা থেকে দেশের মুক্তি পেতে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে সবাইকে আন্দোলনে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে।”

বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ও মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক মির্জা আব্বাস বলেন, “তারেক রহমান কোনো ফেরারি আসামি নন। তিনি চিকিৎসার জন্য বিদেশে আছেন, সেটা মনে রাখতে হবে।তীব্র আন্দোলনের মাধ্যমেই তাকে দেশে ফিরিয়ে আনা হবে।”

মির্জা আব্বাস বলেন, “বর্তমান সরকারের অত্যাচার নির্যাতন হিটলার-মুসোলিনিকেও ছাড়িয়ে গেছে। আওয়ামী লীগ দেশকে ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে গেছে। আন্দোলনের মাধ্যমেই এই স্বৈরাচারী সরকারের পতন নিশ্চিত করতে হবে। তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে আনা হবে।”

সম্প্রতি লন্ডনে একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে তারেক রহমানের দেয়া এক বক্তব্যের প্রসঙ্গ টেনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য প্রফেসর ড. এমাজউদ্দীন আহমদ বলেন, “আমি আশা করি আগামী মাস তিনেকের মধ্যে তারেক রহমান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে এই কথাগুলো বলবেন।”

আন্দোলনের আগে জনগণকে সচেতন করতে বিএনপিকে পরামর্শ দিয়ে সাবেক উপাচার্য বলেন, “একা বেশি দূর যাওয়া যায় না। তাই আন্দোলনে জনগণকে সম্পৃক্ত করতে হবে। রাষ্ট্রবিজ্ঞানের যথার্থতা যদি থাকে, আমার চিন্তাভাবনা যদি ঋজু হয়, তাহলে মার্চ–এপ্রিলের মধ্যে দেশের চেহারা এমন থাকবে না। মাঝখানের সময়ে আন্দোলনে মানুষের সম্পৃক্ততা বাড়বে।”

এ ছাড়া বক্তব্য দেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া,  প্রখ্যাত সাংবাদিক শফিক রেহমান,  বিএফইউজের সভাপতি শওকত মাহমুদ প্রমুখ।

দলের যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন।

আলোচনার ফাঁকে তারেক রহমানকে নিয়ে একটি প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়।               

 
 
 
 
 
 

ঢাকা: গণতন্ত্র ও সুশাসন প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশ এখন রোল মডেল বলে দাবি করেছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। সংসদে প্রশ্নোত্তরে বুধবার স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য রুস্তম আলী ফরাজীর লিখিত প্রশ্নের জবাবে তিনি এমন দাবি করেন।
বিকেলে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের বৈঠক শুরু হলে প্রথমেই প্রধানমন্ত্রীর জন্য নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্ব অনুষ্ঠিত হয়।
সিপিএ ও আইপিওতে বাংলাদেশ থেকে চেয়ারপারসন ও প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়া সম্পর্তিত লিখিত প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আন্তর্জাতিক এই দুটি সংস্থায় বাংলাদেশের জয়লাভ একদিকে যেমন আমাদের বিরল অর্জন, তেমনি বহির্বিশ্বের সঙ্গে আমাদের ক্রমবর্ধমান সৌহাদ্যপূর্ণ সম্পর্কেরই প্রমাণ।’
শেখ হাসিনা দাবি করেন, ‘এর মধ্য দিয়ে এটি নিশ্চিত হয়েছে যে, গণতন্ত্র, উন্নয়ন ও সুশাসন প্রতিষ্ঠায় বর্তমান সরকারের অব্যাহত অগ্রযাত্রার বিষয়ে বিশ্ব সম্প্রদায় পুরোপুরি আস্থা রাখে।’
‘গণতন্ত্র ও সুশাসন প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশ যে আজ রোল মডেল হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে সেটি আবারো সংসদীয় গণতন্ত্রের প্রতিনিধিত্বকারী দুটি আন্তর্জাতিক সংস্থার সর্বোচ্চ পদে নির্বাচিত হওয়ার মধ্য দিয়ে সুস্পষ্টভাবে প্রমাণিত হয়েছে’ যোগ করেন তিনি।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বাংলাদেশকে নিয়ে কোনো কোনো মহলের ‘নেতিবাচক’ প্রচারণা স্বত্ত্বেও বাংলাদেশের জনপ্রতিনিধিদের আন্তর্জাতিক ফোরামে নির্বাচিত হওয়া এটাই প্রমাণ করে যে, সারা বিশ্বের সঙ্গে বাংলাদেশের সৌহাদ্যপূর্ণ ও পারস্পরিক সহযোগিতামূলক সম্পর্কের ভিত্তি ক্রমশঃ আরো জোরদার হচ্ছে।’
সরকারদলীয় সদস্য অধ্যাপক আলী আশরাফের সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বাংলাদেশের মানুষের আস্থা ও বিশ্বাস বর্তমান সরকারের ওপর আছে। তার প্রমাণ, কিছু কিছু রাজনৈতিক দল অথবা ব্যক্তিত্ব অনরবত সরকার উৎখাতের হুমকি ও সময় দিচ্ছে এবং নানা ধরনের কথা বলে আন্দোলনের ঘোষণা দিয়েও সাড়া পাচ্ছে না।
‘এর অর্থ দাঁড়াচ্ছে- জনগণের আস্থা আমাদের ওপর আছে এবং তারা বিশ্বাস করে কেবল আমরাই দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারবো। দেশবাসীর আস্থা ও বিশ্বাসই আমাদের বড় শক্তি’ যোগ করেন শেখ হাসিনা।
স্বতন্ত্র সদস্য রুস্তম আলী ফরাজীর অপর সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আন্তর্জাতিক অঙ্গনে প্রার্থী বাছাই করা বড় বিষয়। ওআইসিতে একজন যুদ্ধাপরাধীকে প্রার্থী দিয়েছিল, সেই প্রার্থীকে কেউ পছন্দ করেনি। যে প্রথম রাউন্ডে দুই ভোট এবং দ্বিতীয় রাউন্ডে শুধু নিজের ভোট পেয়েছিল।
‘আমরা সিপিএ ও আইপিওতে উপযুক্ত প্রার্থী দিয়েছিলাম বলে সবাই ভোট দিয়েছে এবং তারা বিজয়ী হয়েছেন’ দাবি করেন শেখ হাসিনা।
তিনি বলেন, ‘২০৪১সালে বাংলাদেশকে উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করার পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। তাই ২০৪১ সালকে সামনে রেখে কিভাবে আগানো যায় সেই পরিকল্পনা নিচ্ছি।’
এ কে এম রহমতুল্লার এক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি অঙ্গীকার করেছিলাম- দেশের যুদ্ধাপরাধী ও মানবতাবিরোধীদের বিচার করা হবে। চিহ্নিত মানবতাবিরোধীতের বিচারের মাধ্যমে উচিত সাজা নিশ্চিত করলে শহীদের আত্মা শান্তি পাবে ও তাদের পরিবারের সদস্যরা তৃপ্ত হবেন।’

তিনি বলেন, ‘১৯৯১ সালেই যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের জন্য আমি দাবি তুলেছিলাম এবং শহীদদের মা’দের নিয়ে দাবি বাস্তবায়নে সংগ্রাম করেছিলাম। আজ সুষ্ঠু বিচারের মাধ্যমে সাজা কার্যকর শুরু হয়েছে এজন্য আমি স্বস্তি বোধ করছি।’
মোয়াজ্জেম হোসেন রতনের এক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী জানান, ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে ২০১৬ সালের জুন মাসের মধ্যে ৩৯ হাজার ৯০৭টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে একটি করে মাল্টিমিডিয়া শ্রেণীকক্ষ প্রতিষ্ঠার পরিকল্পনা আছে।
তিনি বলেন, প্রতি উপজেলা বা থানার অনধিক তিনটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ মোট এক হাজার ৪৯৭টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে একটি করে ল্যাপটপ, মাল্টিমিডিয়া, সাউন্ড সিস্টেম ও ইন্টারনেট মডেম সরবরাহ করা হয়েছে।
শেখ হাসিনা আরো জানান, চলতি অর্থ-বছরে আরও তিন হাজার ৯৩০টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মাল্টিমিডিয়া শ্রেণীকক্ষের জন্য একইরূপ উপকরণ বিতরণের জন্য অপেক্ষমাণ এবং তিন হাজার ৫০৪টির জন্য সরঞ্জাম সংগ্রহ প্রক্রিয়াধীন               

 
 
 
 
 
 

কামাল হোসেন বাঙ্গালী: বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি সাংবাদিক রুহুল আমিন গাজীর রোগমুক্তি কামনা করে সৌদি আরব প্রবাসী সাংবাদিক ফোরাম কেন্দ্রীয় কমিটির উদ্যোগে রিয়াদের বাথায় বাংলাদেশ কফি হাউজে দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন প্রবাসী সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি আবুল বশির, সহ-সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, সাধারণ সম্পাদক সোহরাব হোসেন লিটন, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আল আমিন, দপ্তর সম্পাদক মোঃ জাহাঙ্গীর আলম হৃদয়, সাংস্কৃতিক সম্পাদক নুরুল আনোয়ার, ক্রীড়া সম্পাদক জহির উদ্দিন মনির, সমাজকল্যাণ সম্পাদক আরিফুর রহমান, তথ্য সম্পাদক আবদুল হালিম, সহ-অর্থ সম্পাদক কামাল হোসেন বাঙ্গালী ও মহিউদ্দিন চোধুরী। দোয়া মাহফিলে মোনাজাত পরিচালনা করেন ফোরামের অর্থ সম্পাদক আলহাজ আবু সাইয়েদ। এ সময় বাংলাদেশ কমিউনিটির নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

 
 
 
 
 
 

ঢাকা, ১৯ নভেম্বর :
বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ৫০তম জন্মদিন উপলক্ষে বুধবার রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সিটিটিউট মিলনায়তনে বিএনপি আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে দর্শক সারিতে উপস্থিত আছেন বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া।

বুধবার বিকাল চারটা ৪০ মিনিটে তিনি সভা মঞ্চে উপস্থিত হন। অনুষ্ঠানে তিনি কোন বক্তব্য রাখবেন না। দর্শক সারিতে বসে আলোচকদের বক্তব্য শুনছেন।  এর আগে বুধবার বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সিটিটিউশন মিলনায়তনে সভাটি শুরু হয়।

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত রয়েছেন- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য প্রফেসর ড. এমাজ উদ্দিন আহমেদ, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য এমকে আনোয়ার, ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া, আ স ম হান্নান শাহ, মির্জা আব্বাস, যুগ্ম মহাসবি এ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী আহমেদ, সাংবাদিক শফিক রেহমান , শওকত মাহমুদ প্রমুখ।

এদিকে, বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ৫০তম জন্মদিন উপলক্ষে বর্ণাঢ্য সাজে সাজানো হয়েছে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তন। মঞ্চসহ আশপাশে ফেস্টুন, ব্যানার আর সাজসজ্জায় পুরো ইনস্টিটিউশন ভিন্ন রুপ ধারণ করেছে।

 
 
 
 
যোগাযোগ করুন..
01712 247 900

dainiksylhet@gmail.com